মেঝেতে স্ত্রীর লাশ, ১০ দিন ধরে তাকিয়ে দেখল স্বামী! অতঃপর..

ভাইয়ের বাড়িতে ঢুকেই হতবাক হয়ে যান সুব্রক্ষ্মন্য মাদিভালা। ভয়ে আঁতকে ওঠে তার সারা শরীর।

তিনি দেখেন, তার ভাবীর দেহ মেঝেতে পড়ে রয়েছে। আর খাটে শুয়ে রয়েছে ভাই আনন্দ। এত দিন ধরে না খেতে পেয়ে অসুস্থ হয়ে গিয়েছেন তিনি।

পরে সে পুলিশে খবর দিলে পুলিশের উপস্থিতিতে ভাবী গিরিজার দেহ উদ্ধার করে শেষকৃত্যের জন্য পাঠানো হয়। হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তার ভাই আনন্দকে।

কিন্তু সোমবার (১৬ জুলাই) সকালে সেখানেই মৃত্যু হয় আনন্দের। সম্প্রতি ভারতের কর্ণাটকে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে বেশ কিছু স্থানীয় গণমাধ্যম।

জানা যায়, আনন্দের স্ত্রী মারা গেছেন ১০ দিন আগে। কিন্তু আনন্দ পক্ষাঘাতগ্রস্ত ও বাকশক্তিহীন হবার কারণে চোখের সামনে স্ত্রীর মৃত্যু হলেও এবং মৃতদেহ পড়ে থাকলেও কিছুই করতে পারেননি। দীর্ঘ ১০ দিন সেখানে থাকার পরে পঁচন ধরে গিরিজার মৃতদেহে। এ সময় খেতে না পেয়ে অসুস্থ হয়ে যান আনন্দ। পরে হাসপাতালে মৃত্যু হয় তার।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*