দিনে আওয়ামী লীগ, রাতে বিএনপি

দিনের বেলা তিনি এখন মস্ত আওয়ামী লীগার। রাষ্ট্রীয় সব অনুষ্ঠানেই তাঁকে দেখা যায়। স্যুটেড-বুটেড হয়ে সব অনুষ্ঠানে উপস্থিত। সরকারের মন্ত্রী এমপিদের সঙ্গে তাঁর সারাদিন দহরম মহরম। তদবির করে তিনি কাজও বাগিয়ে নেন।

রাত বাড়তে থাকে আর পরিচয় পরিবর্তন হতে থাকে তাঁর। রাতে হয়ে যান বিএনপির ত্যাগী কর্মী। বিএনপির জন্য তিনি প্রামাণ্যচিত্র বানান। বিএনপির প্রামাণ্যচিত্রে তিনি কণ্ঠও দেন। বিএনপি এখন মিডিয়াতে কী কী বিষয় করবে তাঁর প্রধান পরামর্শক হিসেবেও কাজ করছেন তিনি। তাঁর নাম শাইখ সিরাজ।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গুলশানের লেকশোর হোটেলে বিএনপি এক গোলটেবিল বৈঠক আয়োজন করে। বৈঠকে বিএনপির আমন্ত্রণে উপস্থিত হয়েছিলেন বিভিন্ন দেশের কূটনীতিক এবং দূতাবাসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বৈঠকের শুরুতেই বাংলাদেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে ৭ মিনিটের একটি প্রামাণ্যচিত্র দেখানো হয়। সেই প্রামাণ্যচিত্রের নির্মাতা হলেন শাইখ সিরাজ।

তিনিই সেই শাইখ সিরাজ যিনি কিছুদিন আগে জোর করেই বাগিয়ে নেন স্বাধীনতা পদক। এই স্বাধীনতা পদকের তালিকায় প্রথম দিকে তাঁর নামই ছিল না। তাঁর তদবিরেই এতই কারিশমা, এর গুণেই তিনি শেষ মুহূর্তে তালিকায় নিজের নাম ঢুকিয়ে পদক বাগিয়ে নিয়েছেন।

স্বাধীনতা পদক পাবার পর সাংবাদিকদের কাছে শাইখ সিরাজের দম্ভোক্তি ছিল, সরকার তো সরকার। রাষ্ট্র সরকার দ্বারা পরিচালিত হয়। কখনো এক সরকার আসে আরেক সরকার যায়।

এভাবেই তো হয় জিনিসগুলো। এখন জনগণকে তার কাজের জন্যে রাষ্ট্র তাঁকে পুরস্কৃত করে। আমি উভয়ের কাছেই হয়তোবা, কাজটির জন্য সবার কাছে সমাদৃত, সেটা হয়তো একটা বড় কারণ হতে পারে।

সম্প্রতি আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যাঁরা বিভিন্ন দল থেকে আওয়ামী লীগে ঢুকেছে তাঁদের সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে। তাঁরা আওয়ামী লীগের ক্ষতির কারণ হতে পারে। কিন্তু এই শাইখ সিরাজ সম্পর্কে তাঁকে কে সতর্ক করবে?

শাইখ সিরাজরা এক সময় জিয়ার খাল কাটা নিয়ে প্রামাণ্যচিত্র বানিয়েছিল। এখন তাঁরা আওয়ামী লীগার হয়ে গেছে। আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা নিচ্ছে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের প্রামাণ্যচিত্র থেকে শুরু করে প্রায় সব ধরনের প্রামাণ্যচিত্র তাঁরা অনেকটা জোর জবরদস্তি করেই বাগিয়ে নিচ্ছে।

তাঁরাই আবার রাতের অন্ধকারে বিএনপির জন্য প্রামাণ্যচিত্র বানাচ্ছে। বিএনপিকে কী কী প্রচারণা করতে হবে তার পরামর্শ দিচ্ছে। এদের সম্পর্কে সরকারকে সতর্ক করবে কে?

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*