”’স্কুলে উন্নত মানের খাবার সরবরাহের দাবি !!!

গত ২৮ জানুয়ারি এনওয়াইসি হেলদি স্কুল ফুড অ্যালায়েন্সের পক্ষ থেকে আন্দ্রে স্ট্রং শিক্ষা বিভাগের কর্মকর্তাদের বরাবর একটি চিঠি পাঠান, যেখানে তিনি নগরীর সব স্কুলের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার সরবরাহে দাবি জানান। বিশেষত শিশুদের জন্য সরবরাহ করা খাদ্যতালিকা থেকে চিনিযুক্ত দুধসহ কিছু খাবার বাদ দেওয়ার দাবি জানাননিউইয়র্ক নগরীর স্কুলগুলোয় আরও উন্নত মানের ও স্বাস্থ্যকর খাবার সরবরাহের দাবি নিয়ে মাঠে নেমেছেন রাজনীতিক ও নাগরিক সমাজের একদল মানুষ। এনওয়াইসি হেলদি স্কুল ফুড অ্যালায়েন্স নামের একটি জোট গঠন করে তাঁরা নগরীর বিভিন্ন স্কুলে সরবরাহ করা খাবারের মান বাড়ানোর দাবি তুলেছেন।

২০১৮ সালের শেষ দিকে ব্রুকলিনের এক মা আন্দ্রে স্ট্রং নতুন এ সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন। পরে এর সঙ্গে যুক্ত হন রাজনীতিকসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ। গত ২৮ জানুয়ারি সংগঠনের পক্ষ থেকে আন্দ্রে স্ট্রং শিক্ষা বিভাগের কর্মকর্তাদের বরাবর একটি চিঠি পাঠান, যেখানে তিনি নগরীর সব স্কুলের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার সরবরাহে দাবি জানান। বিশেষত শিশুদের জন্য সরবরাহ করা খাদ্যতালিকা থেকে চিনিযুক্ত দুধসহ কিছু খাবার বাদ দেওয়ার দাবি জানান।
স্ট্রংয়ের লেখা ওই চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন ব্রুকলিনের বরো প্রেসিডেন্ট এরিক অ্যাডামস। ওই চিঠিতে বলা হয়, ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠেয় শিক্ষা বিভাগের খাদ্যতালিকা সম্পর্কিত সভায় যেন তাঁকে ডাকা হয়। অবশ্য খাদ্য ব্যবসায়ের সঙ্গে জড়িত ও স্বাস্থ্যকর খাবার নিয়ে লেখালেখি করা স্ট্রং এর আগে শিক্ষা বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে সভা করেছেন। গত বছরই একটি সভায় তাঁকে ডাকা হয়েছিল।

আন্দ্রে স্ট্রংয়ের দুই সন্তানও ব্রুকলিনের একটি সরকারি স্কুলের শিক্ষার্থী। স্কুলে সরবরাহ করা খাবারের মান নিয়ে তিনি নিউইয়র্ক পোস্টকে বলেন, ‘আমার বিশ্বাস এই মান আরও উন্নত করা সম্ভব। এসব স্কুলেই আমাদের সন্তানেরা দিনের খাবারটি খায়। ফলে এই খাবারের মান খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাদের বেড়ে ওঠা ও জ্ঞানমূলক বিকাশ যেন যথাযথভাবে হয়, সে জন্য এ ক্ষেত্রে বিশেষ নজর দেওয়াটা অত্যন্ত জরুরি।’

নগরীর স্কুলগুলোয় শিক্ষার্থীদের জন্য সরবরাহ করা খাবারের পুষ্টিমান নিয়ে আগে থেকেই অসন্তোষ ছিল। ২০১৬ সালে নিম্নমানের পিৎজা সরবরাহ করার কারণে কয়েকটি স্কুলে অসন্তোষও দেখা দেয়। বিষয়টি নিয়ে অনেক আগে থেকেই কাজ করছেন আন্দ্রে স্ট্রং। ব্রুকলিন বরো প্রেসিডেন্ট এরিক অ্যাডামসও এই খাবারের মান উন্নয়ন নিয়ে অনেক আগে থেকে বলে আসছেন। তাঁরই চেষ্টায় স্কুলের শিক্ষার্থীদের খাদ্যতালিকা থেকে প্রক্রিয়াজাত মাংস বাদ দেওয়া হয়েছিল।

এ বিষয়ে অ্যাডামস বলেন, ‘স্কুলে সরবরাহ করা খাবারের মান নিয়ে সমস্যাটি অনেক পুরোনো। আমাদের শিশুদের একটি বড় অংশই দীর্ঘমেয়াদি নানা অসুখে ভোগে, শুধু স্কুলে সরবরাহ করা নিম্নমানের খাবার গ্রহণের কারণে।’
এ বিষয়ে একটি টাস্কফোর্স গঠনের জন্য সম্প্রতি একটি প্রস্তাব উত্থাপন করেছেন নগর পরিষদের সদস্য হেলেন রোসেনথ্যাল।

তবে বিষয়টিকে এতটা গুরুতর বিবেচনা করছে না শিক্ষা বিভাগ। শিক্ষা বিভাগের মুখপাত্র মিরান্ডা বারবোট বলেন, ‘আমেরিকার কৃষি বিভাগের নির্ধারিত মান অনুযায়ীই খাবার সরবরাহ করা হয় নগরীর স্কুলগুলোয়। শিক্ষার্থীদের বিনা মূল্যে পুষ্টিকর নাশতা ও দুপুরের খাবার সরবরাহ করাকেই আমরা সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিই। এই খাবারের মান আরও উন্নত করতে এবং এই সেবার পরিসর আরও বাড়াতে স্থানীয় কমিউনিটি নেতৃত্বের সঙ্গে একযোগে কাজ করছি আমরা।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*