কোহলির বেঙ্গালুরুর ব্যর্থতা !!!!!!!

আইপিএলে টানা হারের বৃত্তে ঘুরপাক খাচ্ছে বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। দলটির বাজে পারফরম্যান্সের মধ্যে ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য ইতিবাচক দিক দেখছেন সুনীল গাভাস্কার

নাহ, কালও হলো না। হারের শতভাগ রেকর্ড ঠিকই থাকল। বিরাট কোহলি মাঠ ছাড়ার সময় তাঁর দিকে যেন তাকানো যাচ্ছিল না। মুখে ভর করেছে রাজ্যের আঁধার। এবার আইপিএলে টানা ছয় ম্যাচ খেলে জয় পায়নি তাঁর দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু (আরসিবি)। মুখে তাই হাসি ফোটার প্রশ্নই ওঠে না। সুনীল গাভাস্কার অবশ্য এর মধ্যেও ইতিবাচক বিষয় খুঁজে পাচ্ছেন। তাঁর মতে, বেঙ্গালুরুর এই ব্যর্থতা ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য আশীর্বাদ হয়ে দেখা দিতে

ভারতের সাবেক অধিনায়ক এ কথা বলেছেন বিশ্বকাপের দিকে তাকিয়ে। ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপ শুরু হতে দুই মাসের কম সময় বাকি। এরই মধ্যে কোহলির নেতৃত্বগুণ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। সেটি বেঙ্গালুরু অধিনায়ক হিসেবে এখনো জয়বঞ্চিত থাকার জন্য। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, তাঁর দল এবার শেষ চারে থাকতে পারবে না। গাভাস্কার অবশ্য এর মধ্যে ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিবাচক বিষয় দেখছেন। দেশটির সংবাদমাধ্যমে লেখা কলামে গাভাস্কারের যুক্তি, বর্তমান অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, আরসিবি সম্ভবত কোয়ালিফাই করতে পারবে না। সেটি কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য আশীর্বাদও হতে পারে। অর্থাৎ, বিশ্বকাপের জন্য চাঙা হয়ে উঠতে ভারতীয় অধিনায়ক সপ্তাহখানেক সময় পাবেন। আর কুসংস্কারবাদী হলে এটাও ভেবে নেওয়া যায়, আইপিএলে ভাগ্য যেহেতু তাঁর সহায় হচ্ছে না, বিশ্বকাপে হবে। ভারত কিন্তু এটা চায়। বিশ্বকাপ আসে চার বছর পরপর। আর আইপিএল হয় প্রতিবছরই। আর তাই আইপিএলের চেয়ে বিশ্বকাপ জয় অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

গাভাস্কার কথা নিশ্চয়ই কানে গেছে কোহলির। এতে অবশ্য তাঁর মন ভালো হয়ে ওঠার কথা নয়। মাঠে নেতৃত্ব দিয়ে টানা হারতে যেকোনো অধিনায়কেরই ভালো লাগে না।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*