ক্ষুব্ধ প্রধানমন্ত্রী ডিএমপি ও বিআরটিএকে যে জরুরি ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিলেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অপ্রাপ্ত বয়ষ্ক ও লাইসেন্সবিহীন চালকদের বিরুদ্ধে এবং দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় জরুরি ব্যবস্থা নিতে ডিএমপি ও বিআরটিএকে নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।ওই বিজ্ঞপ্তিতে ২৯ জুলাই বিমানবন্দর সড়কে ২ জন শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে এবং ঢাকা শহরের বর্তমান গণপরিবহনে অপ্রাপ্ত বয়স্ক ও ড্রাইভিং লাইসেন্সবিহীন অবৈধ গাড়ি চালকদের বিরুদ্ধে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিআরটিএ এবং ডিএমপিকে নির্দেশ প্রদান করা হয়।

মঙ্গলবার (৩১ জুলাই) বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সভাকক্ষে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ, বিআরটিএ ও বিআরটিসিসহ সংশ্লিষ্ট সব প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে একটি সভা হয়। ওই সভায় এই নির্দেশ দেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান।অন্যদিকে মঙ্গলবার (৩১ জুলাই সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার বরাত দিয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রীও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি আমাকে বলেছেন, ঘটনা যারা ঘটিয়েছে এবং যে গাড়িটি ঘটিয়েছে এগুলো যেন ইনকোয়ারি করে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, রোববার (২৯ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে এমইএস বাস স্ট্যান্ডে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসের চাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হন।

একই ঘটনায় আহত হন আরও ১০/১৫ শিক্ষার্থী। চাকার নিচে পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যাওয়া দুই শিক্ষার্থী হলেন- শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মীম ও বিজ্ঞান বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আব্দুল করিম রাজিব।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*